timewatch
১৫ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, রাত ৩:১৫ মিনিট
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. কৃষি
  6. খুলনা
  7. খেলাধূলা
  8. গণমাধ্যম
  9. চট্রগ্রাম
  10. জাতীয়
  11. ঢাকা
  12. তথ্য-প্রযুক্তি
  13. ধর্মতত্ত্ব
  14. প্রকৃতি-পরিবেশ
  15. প্রবাস জীবন
শিরোনাম

দুঃস্থদের মাঝে স্বস্তি ফেরাতে দুই মিনিটে বাজার

প্রতিবেদক
স্টাফ রিপোর্টার
অক্টোবর ৩, ২০২৩ ৪:৩৩ অপরাহ্ণ

বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্দার মাঝে দুঃস্থ ও নিম্ন আয়ের মানুষের জীবন বিপন্ন৷ আয় ব্যয়ের হিসাব মেলাতে অনেকের কষ্ট হয়ে আচ্ছে। এমন সব মানুষের জীবনে স্বস্তি ফেরাতে নরসিংদী জেলায় এবার নেওয়া হয়েছে ভিন্নধর্মী এক উদ্যোগ। স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন নরসিংদী শহরের সুবিধাবঞ্চিত ও নিম্ন আয়ের জনসাধারণের জন্য প্রতীকি মূল্যে ব্যাগভর্তি বাজারের আয়োজন করেছে। ‘দুই মিনিটে বাজার’ শিরোনামে এই বিশেষ বাজারে সুবিধাবঞ্চিত, দুঃস্থ ও অসহায় দুই শতাধিক পরিবারের জন্য চাল, ডাল, ডিম, ভোজ্যতেল সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য নামমাত্র মূল্যে সরবরাহ করা হয়েছে।

এর মধ্যে এক টাকায় এক কেজি চাল, দুই টাকায় এক কেজি মশুর ডাল, এক টাকায় এক কেজি আটা, এক টাকায় এক কেজি লবণ, তিন টাকায় এক কেজি চিনি, দুই টাকায় এক ডজন ডিম, দুই টাকায় নুডুলস, ৪ টাকায় স্কুল ব্যাগ সহ শিক্ষা সামগ্রী, ৫ টাকায় মাছ, মুরগী সহ প্রায় ২৫ টি আইটেম।

নাম মাত্র এই মূল্যে এই বাজারে সর্বমোট ১০ টাকার বাজার করা যায় সাধারণ বাজারে যার বাজার মূল্য প্রায় ৭০০ টাকা। গ্রহীতাকে প্রয়োজন মতো পণ্য বাছাই করার সুবিধা দিতে ভিন্নধর্মী এই আয়োজন।

১ অক্টোবর ২০২৩ রবিবার নরসিংদী জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে দুই মিনিটে বাজারে পণ্য কেনা কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক ড. বদিউল আলম। এ সময় বিদ্যানন্দের ভাইস চেয়ারম্যান ফারুখ আহমেদ ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

বিদ্যানন্দের সদস্যরা শহরের বিভিন্ন এলাকায় জরিপের মাধ্যমে অভাবী পরিবার চিহ্নিত করে নির্দিষ্ট কার্ড প্রদান করে। সে কার্ড দেখিয়ে পরিবারগুলো ‘দুই মিনিটে বাজার’ থেকে কেনাকাটার সুযোগ পায়। বিদ্যানন্দের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এটি বিদ্যানন্দের একটি মডেল প্রোগ্রাম। এ ধরণের প্রোগ্রাম বিভিন্ন জেলা শহরে আয়োজন করা হচ্ছে ধারাবাহিক ভাবে। সমাজের বিত্তবানদের সহায়তা পেলে আরও ব্যপকভাবে এই ধরনের আয়োজন করা যাবে।

দেশ বিদেশে ভিন্নতর ও অভিনব সব আইডিয়া নিয়ে সেবামূলক কাজ করে বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছে বিদ্যানন্দ। বিশেষ করে করোনাকালীন সময়ে কেউ যখন ভয়ে ঘর থেকে বের হচ্ছেনা তখন জীবনবাজি রেখে করোনা মহামারী মোকাবেলায় সম্মুখসমরে যুদ্ধ করে সাধারণ মানুষের ভালবাসা অর্জন করে নেয় এই প্রতিষ্ঠান। সমাজসেবায় তাদের অসামান্য সব অবদানের জন্য ২০২৩ সালে সরকার তাদের একুশে পদকে ভূষিত করে। এছাড়াও ২০২২ সালে সমাজকল্যান মন্ত্রনালয় কতৃক জাতীয় মানবকল্যান পদক ও ২০২১ সালে বৃটেনের রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ কতৃক “কমনওয়েলথ পয়েন্টস অফ লাইট” পদকে ভূষিত হয় এই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা।

সর্বশেষ - ধর্মতত্ত্ব