timewatch
২৫ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার, রাত ৮:১৮ মিনিট
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. কৃষি
  6. খুলনা
  7. খেলাধূলা
  8. গণমাধ্যম
  9. চট্রগ্রাম
  10. জাতীয়
  11. ঢাকা
  12. তথ্য-প্রযুক্তি
  13. ধর্মতত্ত্ব
  14. প্রকৃতি-পরিবেশ
  15. প্রবাস জীবন
শিরোনাম

মানিকগঞ্জ এসএসসি ৯৮ ব্যাচের বর্ণাঢ্য রজতজয়ন্তী উদযাপন

প্রতিবেদক
স্টাফ রিপোর্টার
অক্টোবর ১, ২০২৩ ৬:২৬ অপরাহ্ণ

দিনব্যাপী বর্ণাঢ্য নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে মানিকগঞ্জের এসএসসি ১৯৯৮ ব্যাচের রজতজয়ন্তী উদযাপিত হয়েছে। ‘প্রাণের টানে ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে, সকলে আমরা সকলের তরে’ স্লোগানকে সামনে রেখে বন্ধুত্বের জোরালো বন্ধনকে দৃঢ় করার প্রয়াসে এ উৎসবের আয়োজন করা হয়।

২৫ বছর পর ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩ শুক্রবার সকাল ৯টায় মানিকগঞ্জের ঘিওরে অবস্থিত ডেরা রিসোর্ট অ্যান্ড স্পাতে পাঁচশতাধিক এসএসসি ১৯৯৮ ব্যাচের বন্ধুরা একত্রিত হয়। সকাল ৮টায় মানিকগঞ্জ জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে আগত এসএসসি ’৯৮ ব্যাচের বন্ধুদের অভ্যর্থনা দেওয়া হয়। সকালের নাশতা শেষে ৯টায় একটি আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হয়।

দিনব্যাপী এ আয়োজনে আরও ছিল খেলাধুলা, স্মৃতি রোমন্থন, আড্ডা, খাওয়া-দাওয়া, র‍্যাফেল ড্র, আলোচনাসভা, ফটোসেশন, গান, নৃত্য, কবিতা আবৃত্তি, কৌতুক ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এ ছাড়াও প্রয়াত বন্ধু ও শিক্ষকদের স্মরণ করা হয়। অনুষ্ঠানে এসে সহপাঠীদের দেখার পর অনেকেই আবেগে আপ্লুত হন।

সন্ধ্যায় স্থানীয় সংসদ সদস্য নাইমুর রহমান দুর্জয় ও তার স্ত্রী হ্যাপি রহমান উপস্থিত হয়ে মানিকগঞ্জের এসএসসি ’৯৮ বন্ধুদের অনুপ্রেরণা জোগান। এ সময় তিনি রজতজয়ন্তীর ২৫ পাউন্ডের কেক কাটেন, বন্ধুদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন। এতে আরও উপস্থিত ছিলেন জেপি গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী মুরতজা পলাশ।

এসএসসি ১৯৯৮ মানিকগঞ্জ ব্যাচের রজতজয়ন্তী উদযাপনে মূল নেতৃত্ব দেন মীর আরিফুর রহমান কল্লোল, অ্যাডভোকেট বি এম তাসকিন উস সালেহীন রনি, অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ সেলিম হোসেন, আবুল বাশার, অ্যাডভোকেট মুহাম্মদ শফিকুল ইসলাম জসিম, আবুল হোসেন, শারমিন আক্তার প্রমুখ।

রজতজয়ন্তীর অর্থ-উপপরিষদের আহ্বায়ক ছিলেন আবুল বাশার ও সদস্যসচিব আবু নঈম মো. আবুল বাশার; নিবন্ধনের আহ্বায়ক শফিকুল ইসলাম জসিম, সদস্যসচিব মো. আবুল হোসেন; শৃঙ্খলার আহ্বায়ক দেওয়ান মাসুদ রানা, সদস্যসচিব এ কে এম জহিরুল হক ওহাব; আপ্যায়ন ও অভ্যর্থনায় সালেহীন রনি, প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান; সাংস্কৃতি উপপরিষদে মো. মিজানুর রহমান, জিয়াসমিন আক্তার ঝুনু, র‍্যালিতে শফিকুর রহমান শিবলী, দীন ইসলাম; ক্রীড়ায় নওশাদ ওয়াহেদ নাবিল, মো. সালাউদ্দিন; র‍্যাফেল ড্রতে শরিফ হোসেন বাবু, শিল্পী রাণী পণ্ডিত; গিফট ব্যবস্থাপনায় মোহাম্মদ সেলিম হোসেন, তোফাজ্জল হোসেন জয়; ইভেন্ট ব্যবস্থাপনায় মীর আরিফুর রহমান কল্লোল, মো. শরিফুল ইসলাম শরিফ; মহিলা বিষয়ে নুররাত ইসলাম নূপুর, শারমিন সুলতানা; চিকিৎসায় রবিউল ইসলাম তালুকদার, মুর্শিদ উদ্দিন চৌধুরী রূপক; মিডিয়ায় আনিসুর রহমান বুলবুল ও এ বি খান বাবু; হিসাব ও নিরীক্ষায় অরূপ কুমার মণ্ডল ও ফয়েজ আহমেদ।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান পরিবেশন করেন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী ফাতিমাজুজ্জাহরা ঐশী ও তার দল। রজতজয়ন্তী উদযাপন শেষে আগত বন্ধুদের মাঝে স্মরণিকা ‘প্রচেষ্টা’ ও উপহারসামগ্রী বিতরণ করা হয়।

সর্বশেষ - আইন-আদালত