timewatch
২৫ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার, রাত ৮:১৪ মিনিট
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. কৃষি
  6. খুলনা
  7. খেলাধূলা
  8. গণমাধ্যম
  9. চট্রগ্রাম
  10. জাতীয়
  11. ঢাকা
  12. তথ্য-প্রযুক্তি
  13. ধর্মতত্ত্ব
  14. প্রকৃতি-পরিবেশ
  15. প্রবাস জীবন
শিরোনাম

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় ও বিকেএমইএ’র মধ্যে সমঝোতা

প্রতিবেদক
Rupam Akter
মে ২৪, ২০২৩ ৪:৫৮ অপরাহ্ণ

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় ও বিকেএমইএ’র মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। বিকেএইমইএ’র ঢাকা কার্যালয়ে আয়োজিত ম্যাপড ইন বাংলাদেশ প্রকল্পের দ্বিতীয় ধাপে (২০২২-২০২৫) সহযোগিতার জন্য এই সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়।
বিকেএমইএ-এর পক্ষ থেকে সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন সিনিয়র সহ-সভাপতি মনসুর আহমেদ, সহ-সভাপতি ফজলে শামীম এহসান এবং সদস্য মিনহাজুল হক। অন্যদিকে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে স্বাক্ষরকারী হলেন ড. ডেভিড ডোলেন্ড (রেজিস্ট্রার)।
ম্যাপড ইন বাংলাদেশ (এমআইবি) প্রকল্পের উদ্দেশ্য হলো অধিকতর দক্ষতা, কার্যক্ষমতা, দায়িত্বশীলতা ও স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে তৈরি পোশাক কারখানাগুলো থেকে সঠিক, গ্রহণযোগ্য ও হালনাগাদ তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করা এবং তা অংশীজনদের প্রদান করে ডিজিটাল উদ্ভাবন ও স্থায়িত্বের মাধ্যমে পোশাক খাতে অবদান রাখা।
এমআইবি প্রকল্পের প্রথম ধাপ (২০১৭-২০২২) থেকেই ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে বিকেএমইএ’র সহযোগিতার ধারাবাহিকতা অব্যাহত রয়েছে, যেখানে বিকেএমইএ কৌশলগত অংশীদার হিসেবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে এবং দেশব্যাপী বিকেএমইএ’র সদস্য কারখানা থেকে তথ্য সংগ্রহে ব্যাপকভাবে সহায়তা করছে।
লাউডেস ফাউন্ডেশন ও জিআইজেড এর অর্থায়নে এ প্রকল্পের দ্বিতীয় ধাপ বাস্তবায়ন করছে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর অন্ট্রেপ্রেনরশিপ ডেভেলপমেন্ট (সিইডি)। এছাড়া এ প্রকল্প কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের (ডাইফি) সমর্থনপ্রাপ্ত।
রপ্তানিমুখি পোশাক খাতের উদ্যোক্তাদের উৎপাদিত পণ্যসমূহ ও দক্ষতা বৈশ্বিকভাবে প্রদর্শনের জন্য এই প্রকল্প একটি ডিজিটাল মানচিত্র (www.mappedinbangladesh.org) তৈরি করেছে। এমআইবি-এর এই প্রযুক্তি আন্তর্জাতিক বাজারের সাথে সেতুবন্ধন জোরদার করতে দেশের পোশাক খাতকে সাহায্য করবে। একই সাথে, এই প্রকল্প পোশাক খাতের সরবরাহ চেইনকে ডিজিটাল করার মাধ্যমে এবং তা বিশ্বের সামনে তুলে ধরে এই শিল্পের স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে সহায়তা করবে। ফলে পাশাক কারখানাগুলোকে এমআইবি ডিজিটাল মানচিত্রে সহজেই খুঁজে পাওয়া যাবে।
এমআইবি-এর নির্দেশনায় বিভিন্ন অংশীজন নিয়ে একটি প্রকল্প উপদেষ্টা কমিটি রয়েছে যেখানে শ্রমিক, এনজিও, দাতাগোষ্ঠি, গবেষক, ক্রেতা, পোশাক মালিক সমিতি এবং অন্যান্যদের প্রতিনিধি রয়েছেন।
পোশাক শিল্পের সকল অংশীজনদের সার্বিক সমর্থন নিয়ে ম্যাপড ইন বাংলাদেশ (এমআইবি) প্রকল্প একটি ডিজিটাল ইকোসিস্টেম নির্মাণের প্রত্যাশা করছে, যেখানে বাংলাদেশ এবং সারা বিশ্ব থেকে ফ্যাশন ডিজাইনার, পোশাক প্রস্তুতকারক, পোশাক কারখানা, ক্রেতা এবং ভোক্তা সকলেই সংযুক্ত থাকবে এবং এই খাতে অবদান রাখতে সক্ষম হবে।
সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়, বিকেএমইএ, লাউডেস ফাউন্ডেশন এবং জিআইজেড-এর প্রতিনিধি ও অন্যান্য ব্যক্তিবর্গ।

সর্বশেষ - আইন-আদালত