timewatch
৩ মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার, সকাল ৭:৫৯ মিনিট
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. কৃষি
  6. খুলনা
  7. খেলাধূলা
  8. গণমাধ্যম
  9. চট্রগ্রাম
  10. জাতীয়
  11. ঢাকা
  12. তথ্য-প্রযুক্তি
  13. ধর্মতত্ত্ব
  14. প্রকৃতি-পরিবেশ
  15. প্রবাস জীবন
শিরোনাম

দেশে আয়ের চেয়ে সম্পদের বৈষম্য দ্বিগুণ : সিপিডি

প্রতিবেদক
Rupam Akter
মে ২৪, ২০২৩ ৫:৫৩ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশে আয় বেড়েছে দ্বিগুণ। একইসঙ্গে বেড়েছে বৈষম্যও। দেখার বিষয় হলো- আয়বৈষম্যের চেয়ে সম্পদবৈষম্য বেড়েছে দ্বিগুণ হারে। আয়বৈষম্য ১ দশমিক ৪ শতাংশ হলে সম্পদবৈষম্য বেড়েছে ৩ শতাংশেরও বেশি। অর্থাৎ সম্পদের বৈষম্য ক্রমান্বয়ে ঘণীভূত হচ্ছে। এ বৈষম্য কয়েকগুণ হারে বাড়ছে।

বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) বিশেষ ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য এমন তথ্য জানিয়েছেন। ২৪মে ২০২৩ খ্রিষ্টাব্দ বুধবার রাজধানীর গুলশানের একটি অভিজাত রেস্তোরাঁয় ‘স্টেট অ্যান্ড স্কোপ অব প্রোপার্টি ট্যাক্সেসন ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনারের আয়োজন করে সিপিডি। এ সেমিনারে মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য। এ সেমিনার সঞ্চালনা করেন সিপিডির নির্বাহী পরিচালক ফাহমিদা খাতুন।

তিন ধরনের সম্পদের কর নিয়ে সিপিডি কাজ করেছে। সেগুলো হলো- প্রত্যক্ষ সম্পদ কর, হোল্ডিং কর ও উত্তরাধিকার কর। এ তথ্য জানিয়ে দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেন, বর্তমানে সম্পদের সার চার্জ ৩৫ শতাংশ। এটাকেও আমরা উচ্চ কর বলে মনে করছি।

তিনি বলেন, ট্যাক্স সিস্টেমের ক্ষেত্রে শহর ও গ্রামের মধ্যেও বৈষম্য রয়েছে। দেশের ভেতরে সম্পদ যেভাবে কেন্দ্রীভূত হয়েছে, যেভাবে আয়বৈষম্য বেড়েছে। ন্যায্যতা ও বৈষম্য কমাতে সম্পদের করের বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করা প্রয়োজন।

উন্নয়নপ্রকল্পে সরকার ট্যাক্স পরিশোধ করে না জানিয়ে দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেন, সরকার যখন নিজে কোনো প্রকল্প হাতে নেয়, সেটা স্পেশাল ইকোনমিক জোন (বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল) হোক বা অন্য কিছু, তখন দেখা যায়, তারা (সরকার) নিজেরা ট্যাক্স দেন না। এটা (ট্যাক্স পরিশোধ) অনেক পুরানো। সরকার যখন বিদেশ থেকে কিছু পেতো, একটা সময় ছিল এগুলোর আমদানি শুল্ক দিতো না। এখন সরকার এগুলোর আমদানি শুল্ক দেয়। এটা হিসাবের ভেতরে ঢোকে। এখন যেসব ছাড় দেওয়া হচ্ছে, এগুলো কাউকে না কাউকে দেওয়া উচিত। তাহলে হিসাবটাও বাড়তো। সরকারের হিসাবের ভেতর এটা বিনিয়োগযোগ্য সম্পদ হিসেবে আসতো। সরকার তার নিজের প্রকল্পে ছাড় দিলে ব্যক্তিখাতে যারা থাকেন, তাদের সঙ্গেও প্রতিযোগিতায় অসাম্য সৃষ্টি হয়।

পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশের (পিআরআই) নির্বাহী পরিচালক ড. আহসান এইচ মনসুর বলেন, সম্পদ করের ক্ষেত্রে অনেক পিছিয়ে আছি। জমি ও বাড়ি বা অ্যাপার্টমেন্টের ক্ষেত্রে যথাযথভাবে কর আরোপ হচ্ছে না। এখানে বৈষম্য রয়েছে। জমির ওপর বিনিয়োগ বাড়ছে। কারণ জমির দাম অস্বাভাবিক হারে বাড়ছে। এর বড় কারণ এ বিনিয়োগে বড় ধরনের কর দিতে হয় না।

সর্বশেষ - ধর্মতত্ত্ব

আপনার জন্য নির্বাচিত

লিবিয়ায় বন্যা দুর্গতদের মানবিক সহায়তায় জরুরি ত্রাণসামগ্রী পাঠাচ্ছে বাংলাদেশ

ইশতেহারে ২৪ প্রতিশ্রুতি, ক্ষমতায় গেলে যা যা করবে জাপা

সম্মিলিত প্রচেষ্টার মাধ্যমেই সোনার বাংলা গড়া সম্ভব : আইনমন্ত্রী

ডেঙ্গুতে আরও দু’জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ভর্তি ১৪৭

খাগড়াছড়িতে দুই যুবকের আত্মহত্যা

নিউজিল্যান্ড উপকূলে ৬.২ মাত্রার ভূমিকম্প

ফ্রেইট ফরওয়ার্ডারদের বিশেষায়িত ব্যাংকিং সেবা প্রদান করবে ব্র্যাক ব্যাংক

২৮৫ প্রতিবন্ধীকে প্রাথমিকে নিয়োগ দিতে হাইকোর্টের নির্দেশ

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নিলেন রওশন এরশাদ

বিএনপি ভোটে বিশ্বসী না : সাটুরিয়ায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী